মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

আটুলিয়া ইউনিয়নের ইতিহাস

১০নং আটুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদ

ডাকঘরঃ নওয়াবেঁকী, উপজেলাঃ শ্যামনগর জেলাঃ সাতক্ষীরা।

ইউনিয়নের ইতিহাস

ভৌগলিক অবস্থান ও বৈশিষ্ট্যের কারনে বাংলাদেশ অতিমাত্রায় দুর্যোগ প্রবণ। পৃথিবীব্যাপী আবহাওয়া ও জলবায়ুর ক্রমাগত পরিবর্তিত হচ্ছে। এর ফলে বাংলাদেশে প্রাকৃতিক দূর্যোগ পরিস্থিতি আরো বেশী ভয়াবহ এবং অবনতিশীল হচ্ছে। বাংলাদেশের সর্বদক্ষিনে বঙ্গোপসাগরের উপকুলে বিশ্বের সর্ববৃহৎ ম্যানগ্রোভ সুন্দরবন সংলগ্ন এক বিশাল ঐতিহ্যবাহী জনপদ তথা ইউনিয়নের অবস্থান। যার নাম ১০নং আটুলিয়া ইউনিয়ন। ইউনিয়নের পূর্বপাশ দিয়ে কুলকুল করে বয়ে গেছে জোয়ারভাটার নদী খোলপেটুয়া।  ভৌগোলিক কারণে উপকুলের সীমানায় অবস্থিত শ্যামনগরের এই অঞ্চালের মানুষ, অর্থনীতি, কৃষিব্যবস্থা এবং পরিবেশ সব থেকে বেশী দূর্যোগ বিপদাপন্নতায় রয়েছে। প্রাকৃতিক দুর্যোগের প্রায় সবকটিই এখানে আঘাত হেনেছে। গত ২৫শে মে ২০০৯ সালের ‘আইলা’ নামক আপদ খোলপেটুয়া ও চুনা নদীর বেঁড়ীবাধ ভেঙ্গে এ এলাকায় একটি স্থায়ী দূর্যোগ পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে, ধ্বংস করেছে এলাকার অবকাঠামো, সুপেয় পানি, জীবিকায়নের উৎস, কৃষি ব্যবস্থা, প্রকৃতি ও প্রাকৃতিক পরিবেশ, ইত্যাদি। ফলে বিসত্মীর্ণ এলাকা বিশেষ করে দক্ষিন-পশ্চিম উপকুলীয় অঞ্চলের কৃষি ব্যবস্থা, শিল্প, মৎস্য সম্পদ, বনভূমি, লোকবসতি ও ঐতিহ্যবাহী ম্যানগ্রোভ সুন্দরবন তীব্র লবনাক্ততার কারণে আজ ধ্বংশের পথে। শ্যামনগর উপজেলার আটুলিয়া ইউনিয়নের মানুষ ‘অর্থনৈতিক ক্ষমতায়ন, জলবায়ু পরিবর্তন জনিত ঝুঁকি মোকাবেলায় সক্ষমতা উন্নয়ন, নেতৃত্বের বিকাশ, এবং শিক্ষার মাধ্যমে এই জনপদে দুর্যোগ সহনশীলতা উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। প্রাকৃতিক দুর্যোগের প্রভাব থাকা সত্তেও শিক্ষা-দীক্ষা, ক্রীড়া - সংস্কৃতি ও ইতিহাস ঐতিহ্যে শ্যামনগর উপজেলার মধ্যে অন্যতম একটি জায়গায় এই ইউনিয়নটি আসতে পেরেছে সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর উপজেলার প্রাণকেন্দ্র ঐতিহ্যবাহী ১০নং আটুলিয়া ইউনিয়ন শিক্ষা-দীক্ষা, ক্রীড়া-সংস্কৃতি ইত্যাদি নানা কারণে সুপরিচিত। উপকূলীয় এলাকায় অবস্থানের কারণে প্রতিনিয়ত ঝড়, বন্যা, জলোচ্ছাস, লবনাক্ততাসহ নানাবিধ প্রতিকূলতার সাথে যুদ্ধ করে বেঁচে আছে এ এলাকার মানুষ।


Share with :

Facebook Twitter